কুরআনের শেষ 10 টি সূরা | কুরআনের প্রথম সূরা | কুরআনের সবচেয়ে বড় আয়াত কোনটি | কুরআনের 114 টি সূরার নাম

কুরআনের শেষ 10 টি সূরা, কুরআনের সব সূরারর প্রথম সূরা, কুরআনের সূরার তালিকা, কুরআনের সবচেয়ে বড় আয়াত কোনটি, কুরআনের সুরা, কুরআনের 114 টি সূরার নাম

আমরা আপনাদের জন্য বিশেষভাবে সাইটে কুরআনের শেষ ১০ টা সূরা নিয়ে এসেছি |

প্রিয়পাঠকপাঠীকাবৃন্দ, Gov Education Blog এর পক্ষ থেকে সবাইকে জানাই আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু । আমার দ্বীনী ভাই ও বোনেরা আশা করি সবাই ভালো আছেন । আমরাও আপনাদের দোয়া ও আল্লাহর রহমতে অনেক ভালো আছি । প্রিয় ভাই ও বোনেরা আজ আমরা আপনাদের মাঝে নিয়ে আসলাম কুরআনের শেষ 10 টি সূরা, কুরআনের সব সূরার নাম, কুরআনের প্রথম সূরা, কুরআনের সূরার তালিকা, কুরআনের সবচেয়ে বড় আয়াত কোনটি, কুরআনের সুরা, কুরআনের 114 টি সূরার নাম । আশা করি আপনারা সম্পূর্ণ লেখাটি ধৈর্য সহকারে পড়বেন ।

কুরআনের শেষ 10 টি সূরা

সূরাহ ফীল:-

বিসমিল্লাহ بِسمِ اللَّهِ الرَّحمٰنِ الرَّحيمِ
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম
 শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু

[1] ইলম أَلَم تَرَ كَيفَ فَعَلَ رَبُّكَ بِأَصحٰبِ الفيلِ
[1] আলাম্ তার কাইফা ফা‘আলা রব্বুকা বিআছ্হা-বিল্ ফীল্ ।
[1] আপনি কি দেখেননি আপনার পালনকর্তা হস্তীবাহিনীর সাথে কিরূপ ব্যবহার করেছেন ? 

[2] আলাম্ أَلَم يَجعَل كَيدَهُم فى تَضليلٍ
[2] আলাম্ ইয়াজ‘আল্ কাইদাহুম্ ফাই তাদ্ব্লীলিঁও
[2] তিনি কি তাদের চক্রান্ত নস্যাৎ করে দেননি?

[3] وَأَرسَلَ عَلَيهِم طَيرًا أَبابيلَ
[3] অ র্আসালা ‘আলাইহিম্ ত্বোয়াইরন্ আব্বাহ-বীলা-
[3] তিনি তাদের উপর প্রেরণ করেছেন ঝাঁকে ঝাঁকে পাখী,

[4] তারমীহিম্ تَرميهِم بِحِجارَةٍ مِن سِجّيلٍ
[4] তারমীহিম্ বিহিজ্বা-রতিম্ মিন্ সিজ্জ্বীলিন্
[4] যারা তাদের উপর পাথরের কংকর নিক্ষেপ করছিল ।

[5]    فَجَعَلَهُم كَعَصفٍ مَأكولٍ মি কূল্লী
[5] ফাজ্বা‘আলাহুম্ কা‘আছ্ফিম্ মাকূল্ ।
[5] অতঃপর তিনি তাদেরকে ভক্ষিত তৃণসদৃশ করে দেন ।

সূরা কোরাইশ:-

[1] লা لِإيلٰفِ قُرَيشٍ
[1] লিঈলা-ফাই কুরইশিন্ ।
[1] কোরাইশের আসক্তির কারণে,
 
[2] إۦلٰفِهِم رِحلَةَ الشِّتاءِ وَالصَّيفِ
[2] ঈলা-ফিহীম রিহ্লাতাশ্ শিতা-য়ি অছ্ছোয়াইফ্ ।
[2] আসক্তির কারণে তাদের শীত ও গ্রীষ্মকালীন সফরের ।
 
[3] রাব্বি فَليَعبُدوا رَبَّ هٰذَا البَيتِ
[3] ফাল্ইয়া’বুদূ রব্বাহা-জাল বাইতি
[3] অতএব তারা যেন এবাদত করে এই ঘরের পালনকর্তার

[4] আল্লাজী الَّذى أَطعَمَهُم مِن جوعٍ وَءامَنَهُم مِن خَوفٍ
[4] ল্লাযী আত্ব‘আমাহুম্ মিন্ জুইঁও ও ইয়াাহ আ-মানাহুম্ মিন্ খাওফ্ ।
[4] যিনি তাদের কে ক্ষুধায় আহার দিয়েছেন এবং যুদ্ধভীতি থেকে তাদেরকে নিরাপদ করেছেন ।

সূরা মাউন:-

[1]  أَرَءَيتَ الَّذى يُكَذِّبُ بِالدّينِ বিদ্দীন
[1] আরয়াইতাল্লাযী-ইয়ুকায্যিবু বিদ্দীন্ ।
[1] আপনি কি দেখেছেন তাকে, যে বিচারদিবসকে মিথ্যা বলে ?

[2]  فَذٰلِكَ আল্লাযী يَدُعُّ اليَتيمَ
[2] ফাযা-লিকাল্লাজী ইয়াদু’উ’ল্ ইয়াতীমা
[2] সে সেই ব্যক্তি, যা এতীমকে গলা ধাক্কা দেয়

[3]  ও লা وَلا يَحُضُّ عَلىٰ طَعامِ المِسكينِ
[3] অলা-ইয়াহুদ্ব্দু ‘আলা-তোয়া‘আ- মিল্ মিসকীন্ ।
[3] এবং মিসকীনকে অন্ন দিতে উৎসাহিত করে না ।

[4] ফাওইয়ালু فَوَيلٌ لِلمُصَلّينَ
[4] ফাওয়াইলুল্লিল্ মুছোয়াল্লীনা ।
[4] অতএব দুর্ভোগ সে সব নামাযীর,

[5] আল্লাযী  هُم عَن صَلاتِهِم ساهونَ
[5] ল্লাযীনাহুম্ ‘আন ছলা-তিহিম্ সা-হূন্ ।
[5] যারা তাদের নামায সম্বন্ধে বে-খবর;

[6]   الَّذينَ هُم يُراءونَ আল্লাযী
[6] আল্লাযীনা হুম ইয়ুরা-য়ূনা
[6] যারা তা লোক-দেখানোর জন্য করে

[7]  وَيَمنَعونَ الماعونَ ও ইয়াহ
[7] অইয়াম্ না‘ঊনাল্ মা-‘ঊন্ ।
[7] এবং নিত্য ব্যবহার্য্য বস্তু অন্যকে দেয় না ।

সূরা কাওসার:-

[1] ইন্নী إِنّا أَعطَينٰكَ الكَوثَرَ
[1] ইন্নী য় আ’ত্বোয়াইনা-কাল্ কাওর্ছার ।
[1] নিশ্চয় আমি আপনাকে কাওসার দান করেছি ।

[2]  فَصَلِّ لِرَبِّكَ وَانحَر ফাসলূ
[2] ফাছোয়াল্লি লির ব্বিকা ওয়ার্ন্হা ।
[2] অতএব আপনার পালনকর্তার উদ্দেশ্যে নামায পড়ুন এবং কোরবানী করুন ।
 
[3] ইন্নী إِنَّ شانِئَكَ هُوَ الأَبتَرُ
[3] ইন্নী শা য় নিয়াকা হুওয়াল্ আর্ব্তা ।
[3] যে আপনার শত্রু, সেই তো লেজকাটা, নির্বংশ ।

সূরা কাফিরুন:-

[1]   قُل يٰأَيُّهَا الكٰفِرونَ  কূল
[1] কূূল ইয়া য় আইয়ুহাল্ কা-ফিরূনা ।
[1] বলুন, হে কাফেরকূল,
 
[2] লা لا أَعبُدُ ما تَعبُدونَ
[2] লা য় আ’বুদু মা তা’বুদূনা ।
[2] আমি এবাদত করিনা, তোমরা যার এবাদত কর ।
 
[3]  ও লা وَلا أَنتُم عٰبِدونَ ما أَعبُدُ
[3] অলা য় আন্তুম্ ‘আ-বিদূনা মা য় আ’বুদ্ ।
[3] এবং তোমরাও এবাদতকারী নও, যার এবাদত আমি করি

[4]     وَلا أَنا۠ عابِدٌ ما عَبَدتُم 
[4] অলা য় আনা ‘আ-বিদুম্ মা -‘আবাততুম্ ।
[4] এবং আমি এবাদতকারী নই, যার এবাদত তোমরা কর ।

[5] وَلا أَنتُم عٰبِدونَ ما أَعبُدُ
[5] অলা য় আন্তুম্ ‘আ-বিদূনা মা য় আ’বুদ্ ।
[5] তোমরা এবাদতকারী নও, যার এবাদত আমি করি ।
 
[6]    لَكُم دينُكُم وَلِىَ دينِ 
[6] লাকুম্ দীনু কুম্ অলিয়াদীন্ ।
[6] তোমরা কর্ম ও কর্মফল তোমাদের জন্যে এবং আমার কর্ম ও কর্মফল আমার জন্যে ।

সূরা নছর:-

[1] ইযা إِذا جاءَ نَصرُ اللَّهِ وَالفَتحُ
[1] ইযা-জ্বা-য়া নাছ্রুল্লা-হাই অল্ফাত্হু
[1] যখন আসবে আল্লাহর সাহায্য ও বিজয়

[2] وَرَأَيتَ النّاسَ يَدخُلونَ فى دينِ اللَّهِ أَفواجًا আল্লাহ
[2]  অরয়াইতান্না-সা ইয়াদ্খুলূনা ফী দীনিল্ লা-হি আফ্ওয়া-জ্বা- ।
[2] এবং আপনি মানুষকে দলে দলে আল্লাহর দ্বীনে প্রবেশ করতে দেখবেন,
 
[3]  فَسَبِّح بِحَمدِ رَبِّكَ وَاستَغفِرهُ ۚ إِنَّهُ كانَ تَوّابًا ফাসাব্বিহ্
[3] ফাসাব্বিহ্ বিহাম্দি রব্বিকা অস্তার্গ্ফিহু; ইন্নাহূ কা-না তাওয়্যা-বা-।
[3] তখন আপনি আপনার পালনকর্তার পবিত্রতা বর্ণনা করুন এবং তাঁর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করুন । নিশ্চয় তিনি ক্ষমাকারী ।

সূরা লাহাব:-

[1] تَبَّت يَدا أَبى لَهَبٍ وَتَبَّ  তাব্বাত
[1] তাব্বাত ইয়াদা য় আবী লাহাবিঁও অতাব্ ।
[1] আবূ লাহাবের হস্তদ্বয় ধ্বংস হোক এবং ধ্বংস হোক সে নিজে,
 
[2] মা ا أَغنىٰ عَنهُ مالُهُ وَما كَسَبَ
[2] মা য় আগ্না-‘আন্হু মা-লুহূ অমা-কাসাব্
[2] কোনো কাজে আসেনি তার ধন-সম্পদ ও যা সে উপার্জন করেছে ।
 
[3]   سَيَصلىٰ نارًا ذاتَ لَهَبٍ লাহবূ
[3] সাইয়াছ্লা- না-রন্ যা-তা লাহাবিঁও ।
[3] সত্বরই সে প্রবেশ করবে লেলিহান অগ্নিতে
 
[4]   وَامرَأَتُهُ حَمّالَةَ الحَطَبِ 
[4] অম্রয়াতুহ্; হাম্মা-লাতাল্ হাত্বোয়াব্ ।
[4] এবং তার স্ত্রীও-যা ইন্ধন বহন করে,

[5] মাসদুু فى جيدِها حَبلٌ مِن مَسَدٍ
[5] ফাই জ্বীদিহা-হাব্লুম্ মিম্ মাসাদ্ । 
[5] তার গলদেশে খর্জুরের রশি নিয়ে ।

সূরা এখলাছ:-

[1] কূূল هُوَ اللَّهُ أَحَدٌ
[1] কূূল হুওয়াল্লা-হু আহাদ্ ।
[1] বলুন, তিনি আল্লাহ, এক,

[2] আল্লাহ اللَّهُ الصَّمَدُ
[2] আল্লাহ-হুচ্ছমাদ্।
[2] আল্লাহ অমুখাপেক্ষী,

[3] লাম لَم يَلِد وَلَم يولَد
[3] লাম ইয়ালিদ্ অলাম্ ইয়ূলাদ্ ।
[3] তিনি কাউকে জন্ম দেননি এবং কেউ তাকে জন্ম দেয়নি ।
 
[4] ওয়া লাম্ وَلَم يَكُن لَهُ كُفُوًا أَحَدٌ
[4] ওয়া লাম্ ইয়া কুল্লাহূ কুফুওয়ান্ আহাদ্ ।
[4] এবং তার সমতুল্য কেউ নেই ।

সূরা ফালাক:-

[1]  قُل أَعوذُ بِرَبِّ الفَلَقِ কূূল
[1] কূূল আ‘ঊযু বিরব্বিল্ ফালাক্বি ।
[1] বলুন, আমি আশ্রয় গ্রহণ করছি প্রভাতের পালনকর্তার,

[2] মিন্ شَرِّ ما خَلَقَ
[2] মিন্ শাররি মা-খলাক্ব ।
[2] তিনি যা সৃষ্টি করেছেন, তার অনিষ্ট থেকে,

[3] ওয়া মিন্ وَمِن شَرِّ غاسِقٍ إِذا وَقَبَ
[3] ওয়া মিন্ শাররি গ-সিক্বিন্ ইযা-অক্বাব্ ।
[3] অন্ধকার রাত্রির অনিষ্ট থেকে, যখন তা সমাগত হয়,
 
[4] ওয়া মিন্ وَمِن شَرِّ النَّفّٰثٰتِ فِى العُقَدِ
[4] ওয়া মিন্ শাররি ন্নাফ্ফা-ছা-তি ফিল্ ‘উক্বদ্ ।
[4] গ্রন্থিতে ফুঁৎকার দিয়ে জাদুকারিনীদের অনিষ্ট থেকে ।

[5]  وَمِن شَرِّ حاسِدٍ إِذا حَسَدَ ওয়া মিন্
[5] ওয়া মিন্ শাররি হা-সিদিন্ ইযা-হাসাদ্ ।
[5] এবং হিংসুকের অনিষ্ট থেকে যখন সে হিংসা করে ।

সূরা নাস:-

[1] কূূল أَعوذُ بِرَبِّ النّاسِ
[1] কূূল আ‘ঊযু বিরব্বিন্না-স্ ।
[1] বলুন, আমি আশ্রয় গ্রহণ করিতেছি মানুষের পালনকর্তার,

[2] মালিক مَلِكِ النّاسِ
[2] মালিকিন্না-স্ ।
[2] মানুষের অধিপতির,

[3] إِلٰهِ النّاسِ
[3] ইলা-হি ন্না-স্
[3] মানুষের মা’বুদের
 
[4] مِن شَرِّ الوَسواسِ الخَنّاسِ
[4] মিন্ শাররিল ওয়াস্ ওয়া -সিল্ খান্না-সি
[4] তার অনিষ্ট থেকে, যা কুমন্ত্রণা দেয় ও আত্নগোপন করে,

[5]   الَّذى يُوَسوِسُ فى صُدورِ النّاسِ
[5] আল্লাযী ইউওয়াস্ওয়িসু ফিসূ ছুদূরিন্না-স্ ।
[5] যে কুমন্ত্রণা দেয় মানুষের অন্তরে
 
[6] مِنَ الجِنَّةِ وَالنّاسِ
[6] মিনাল জ্বিন্নাতি অন্না-স্।
[6] জ্বিনের মধ্যে থেকে অথবা মানুষের মধ্য থেকে ।

কুরআনের সব সূরার নাম | কুরআনের 114 টি সূরার নাম 

১. সূরা আল-ফাতিহা
২. সূরা  আল বাকারাহ
৩. সূরা আলে ইমরান
৪. সূরা আন্ নিসা
৫. সূরা আল মায়েদাহ
৬. সূরা আল আন'আম
৭. সূরা আল আরাফ
৮. সূরা আল আনফাল
৯. সূরা আত তাওবা
১০. সূরা ইউনুস
১১. সূরা  হুদ
১২. সূরা ইউসুফ
১৩. সূরা আর্ রাদ
১৪. সূরা  ইব্রাহীম
১৫. সূরা আল হিজর
১৬. সূরা আন নাহল
১৭. সূরা বনী ইস্রাঈল
১৮. সূরা আল কাহফ
১৯. সূরা মারয়াম
২০. সূরা ত্বাহা
২১. সূরা আল আম্বিয়া
২২. সূরা আল হাজ্জ
২৩. সূরা আল মুমিনূন
২৪. সূরা আন্ নূর
২৫. সূরা আল-ফুরকান
২৬. সূরা আশ্-শু'আরা
২৭. সূরা আন নামল
২৮. সূরা আল কাসাস
২৯. সূরা আল আনকা্বূত
৩০. সূরা আর রুম
৩১. সূরা লুক্মান
৩২. সূরা আস সাজাদাহ
৩৩. সূরা আল আহযাব
৩৪. সূরা আস সাবা
৩৫. সূরা ফাতের
৩৬. সূরা ইয়া-সীন
৩৭. সূরা আস্ স-ফফা-ত
৩৮. সূরা সা-দ
৩৯. সূরাআয যুমার
৪০.  সূরা আল মুমিন
৪১. সূরা হা-মীম আস সাজাদাহ
৪২. সূরা আশ শূরা
৪৩. সূরা আয্ যুখ্রুফ
৪৪. সূরা আদ দুখান
৪৫. সূরা আল জাসিয়াহ
৪৬. সূরা আল আহক্কাফ
৪৭. সূরা মুহাম্মদ
৪৮. সূরা আল ফাতহ
৪৯. সূরা আল হুজুরাত
৫০. সূরা ক্কাফ
৫১. সূরা আয যারিয়াত
৫২. সূরা আত তূর
৫৩. সূরা আন নাজম
৫৪.  সূরা আল ক্কামার
৫৫. সূরা আর রহমান
৫৬. সূরা আল ওয়াকি'আ
৫৭. সূরা আল হাদীদ
৫৮. সূরা আল মুজাদালাহ
৫৯. সূরা আল হাশর
৬০. সূরা আল মুমতাহিনা
৬১. সূরা আস সফ
৬২. সূরাআল জুমআ
৬৩. সূরা আল মুনাফিকুন
৬৪. সূরা আত তাগাবুন
৬৫. সূরা আত তালাক
৬৬. সূরা আত তাহ্রীম
৬৭.  সূরা আল মুলক
৬৮. সূরা আল কলম
৬৯. সূরা আল হাককাহ
৭০. সূরা আল মাআরিজ
৭১. সূরা নূহ
৭২. সূরা আল জিন
৭৩. সূরা আল মুযযাম্মিল
৭৪. সূরা আল মুদ্দাস্সির
৭৫. সূরা আল কিয়ামাহ
৭৬. সূরা আদ দাহর
৭৭. সূরা আল মুরসালাত
৭৮. সূরা আন নাবা
৭৯. সূরা আন নাযি'আত
৮০. সূরা  আবাসা
৮১. সূরা আত তাকবীর
৮২. সূরা আল ইনফিতার
৮৩. সূরা আল মুতাফফিফীন
৮৪. সূরা আল ইনশিকাক
৮৫. সূরা আল বুরুজ
৮৬. সূরা আত তারিক
৮৭. সূরা আল আ'লা
৮৮. সূরা আল গাশিয়াহ
৮৯. সূরা আল ফজর
৯০. সূরা আল বালাদ
৯১. সূরা আশ শামস
৯২. সূরা আল লাইল
৯৩. সূরা আদ দুহা
৯৪. সূরা আলাম নাশ্রাহ
৯৫. সূরা আত তীন
৯৬. সূরা আলাক
৯৭. সূরা আল কাদ্র
৯৮. সূরা আল বাইয়েনাহ
৯৯. সূরা আল যিলযাল
১০০. সূরা আল আদিয়াহ
১০১. সূরা আল কারি'আহ
১০২. সূরা আল তাকাসুর
১০৩. সূরা আল আসর
১০৪. সূরা আল হুমাযা
১০৫. সূরা আল ফীল
১০৬. সূরা কুরাইশ
১০৭. সূরা আল মাউন
১০৮. সূরা আল কাউসার
১০৯. সূরা আল কাফিরুন
১১০. সূরা আন্ন নসর
১১১. সূরা আল লাহাব
১১২. সূরা আল ফালাক
১১৪. সূরা আন্ন নাস

কুরআনের প্রথম সূরা 

কুরআনের প্রথম সূরা হলো "আল ফাতিহা

কুরআনের সবচেয়ে বড় আয়াত কোনটি

সূরা বাকারার ২৮২ নং আয়াত

কুরআনের সুরা

পবিত্র কুরআনে সর্বমোট ১১৪ টি সুরা রয়েছে

Tag: কুরআনের শেষ 10 টি সূরা, কুরআনের সব সূরারর প্রথম সূরা, কুরআনের সূরার তালিকা, কুরআনের সবচেয়ে বড় আয়াত কোনটি, কুরআনের সুরা, কুরআনের 114 টি সূরার নাম

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url

About Of Admin

Lorem Ipsum is simply dummy text of the printing and typesetting industry. Lorem Ipsum has been the industry's standard dummy text ever since the 1500s, when an unknown printer took a galley of type and scrambled it to make a type specimen book. It has survived not only five centuries, but also the leap into electronic typesetting, remaining essentially unchanged. It was popularised in the 1960s with the release of Letraset sheets containing Lorem Ipsum passages, and more recently with desktop publishing software like Aldus PageMaker including versions of Lorem Ipsum.

Let's Get Connected:-
Twitter | Facebook | Linkedin | Pinterest